মোবাইল, কম্পিউটার, ইন্টারনেটে আসত্তি | Internet Addiction Exclusive Bad 2021

Internet Addiction of 2021

কম্পিউটার, মোবাইল ফোন বা ইন্টারনেট এমন যেকোনো যন্ত্রগুলোর প্রতি তীব্র টানই হলো ইন্টারনেট আসক্তি(Internet Addiction)। বিশেষ করে শিশু কিশোরদের মধ্যে এই ইন্টারনেট আসক্তি(Internet Addiction) দেখা যায়। তবে সকল বয়সের মানুষই এতে আসক্ত হতে পারে। তাই আজকে আমরা ইন্টারনেট আসক্তি(Internet Addiction) নিয়ে আলোচনা করবো।

ইন্টারনেট আসক্তি(Internet Addiction)ঃ

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির নিয়ন্ত্রনহীন অবাধ ব্যবহারের ফলে পারিবারিক, সামাজিক এমনকি রাষ্ট্রীয় পর্যায়ে নেতিবাচক অবস্থা পরিলক্ষিত হচ্ছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম (যেমন- ফেসবুক, টুইটার, ইনস্টাগ্রাম ইত্যাদি) ব্যবহারের তীব্র আসক্তি ক্ষতিকারক প্রভাব আশঙ্কাজনকভাবে বেড়ে যাচ্ছে। এর ফলে অল্প বয়সে শিক্ষার্থীরা পড়াশোনায় অমনোযোগী, নৈতিক-অনৈতিকতার তফাত শনাক্ত করতে না পারা।
শুদ্ধাচারে অনীহাসহ নানা অসামাজিকতা লিপ্ত পেয়ে বসেছে। অভিভাবকগণও এর আসক্তি থেকে নিস্কৃতই পাচ্ছেন না। যার কারণে কর্ম ক্ষেত্রে শ্রমঘণ্টা নষ্ট, অনৈতিক কার্যকলাপে অর্থহীনভাবে সময় নষ্ট, সন্তানদের সময় না দেওয়া বা তাদের প্রতি যত্নবান না হওয়ায় অনেক ঘটনার জন্ম হচ্ছে। অনলাইনে গেমসের আসক্তি আরো ভয়াবহ প্রভাব ফেলছে সামাজিক জীবনে। ঘন্টার পর ঘন্টা এতে সময় দেবার ফলে মাদকাসক্তির মতো ভয়ংকর নেশাগ্রস্ততায় নিমজ্জিত হতে যাচ্ছে সমাজের একটি বিরাট অংশ।
এসব গেমসের জন্য সন্তান বিক্রির মতো ঘটনার খবর পাওয়া গেছে। অনলাইন গেমসে আসক্ত হয়ে ব্যবহারকারীদের মৃত্যুমুখে পতিত হওয়ার ঘটনা বিভিন্ন দেশে ঘটছে। একজন রাশিয়ান নাগরিকের তৈরি গেমস এর মাধ্যমে অনেক ছেলেমেয়ে আত্নহত্যা বা অকাল মৃত্যুমুখেও পতিত হয়েছে। এছাড়াও বিদেশী সংস্কৃতি বিরূপ প্রভাব তো রয়েছেই।

আজকালকার প্রতিটি দেশের চলচ্চিত্রে মারামারি, খুনাখুনি ও অন্যান্য ভায়োলেন্স অনুকরণ করে ছেলেমেয়েদেরকে সহিংস করে তুলছে। এসবের ফলে আচার-আচরণ, মানসিকতা পোশাক-পরিচ্ছেদে নেতিবাচক পরিবর্তন লক্ষণীয় মাত্রা বাড়তে দেখা যাচ্ছে। অবাধ তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির অপব্যবহারে কুরুচিপূর্ণ ছবি ও ভিডিও স্বল্পমূল্যের মোবাইল ফোনেও বিদ্যমান। যেগুলো ইন্টারনেট আসক্তি(Internet Addiction) এক ব্যাপক উদাহরণ।

অপরাধঃ

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম তীব্র আসক্তির কারণে কোমলমতি শিশু সহ সমাজের এক বৃহদাংশ মানুষ বিপদে পড়ে যাচ্ছে। মতলববাজ হ্যাকাররা নানা কৌশলে বিভিন্ন ব্যবসায় প্রতিষ্ঠানটি গত গোপনীয় তথ্য চুরি/পাচার, সাইবার হামলা, নেতিবাচক প্রজ্ঞাপনা, ছড়িয়ে দিয়ে সমাজে অস্থিতিশীল পরিবেশের জন্ম দিতে পারে।

স্বাস্থ্যগত সমস্যাঃ

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি সংক্রান্ত যন্ত্রপাতি বিশেষত কম্পিউটার অত্যধিক ব্যবহারের ফলে চোখের উপর চাপ পড়ে, মাথাব্যথা, হাত ব্যাথা, ঘাড় ও পিঠের সমস্যায় আক্রান্ত হতে দেখা যায় অনেকেই। রাত জেগে মোবাইল ফোন ব্যবহার, কম্পিউটার বা ইন্টারনেটে সময় কাটানোর কারণে স্নায়বিক ও মস্তিষ্কের নানাবিধ অসুস্থতায় পরিলক্ষিত হচ্ছে।

Internet Addiction

আমার মতামত

বর্তমান যুগটাই সব কিচ্ছুর উপরেই তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির উপর নির্ভরশীল। আর প্রযুক্তির প্রাণই হলো ইন্টারনেট। যেটা তৈরি করা হয়েছিল পুরো বিশ্বকে হাতের মুঠোয় নিয়ে আসার জন্য। যে কাজে আমরা সফল হয়েছি। আর আমাদের প্রতিটি দরকারে কিন্তু এই ইন্টারনেটকে পাশে পাচ্ছি। আর সকল কিছু বিবেচনা করতে গেলে ইন্টারনেট এর উপকারীতাই অনেক বেশি। যেখানে অপকারীতা একে বারেই নগণ্য। ইন্টারনেটের কিছুটা খারাপ দিক আছে। তাই বলে এটা তো আর আমরা বন্ধ করতে পারি না। আর ইন্টারনেটে আসত্তি হওয়া তেমন আশ্চর্যের ব্যাপার নয়। বর্তমানে বহু মানুষ এমন আসত্তিতে আক্রান্ত হচ্ছে। তাই ইন্টারনেট কে সচেতন ভাবে ব্যবহার করা আমদের দায়িত্ব। এবং নিজের কন্টোল এ রাখা ততটাই জরুরি।

পরিশেষে বলা যায়, চিকিৎসার জন্য ব্যবহৃত সার্জারির চাকু এর ব্যবহার যথাযথ ভাবে না করে। কোন খারাপ এর কাজের অপব্যবহার রোধ করার জন্য সার্জারি চাকু এর নয়। এই দায়িত্ব আমাদের সবার। একইভাবে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির যথোপযুক্ত ব্যবহার নিশ্চিতের মাধ্যমে মানব সভ্যতাকে আরো। অনন্যমাত্রায় দৃষ্টান্ত করার জন্য প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখতে হবে।

আরও পড়ুন, Walton Avian WS Gaming PC Review
কম্পিউটার এবং ইন্টারনেট ব্যবহারে নৈতিকতা।

Internet Addiction

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *